রোববার ঘর পাচ্ছে সিলেটের আরও ৬২১২ পরিবার: সর্বোচ্চ বরাদ্দ সুনামগঞ্জে

কালনী ভিউকালনী ভিউ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৪৩ PM, ১৭ জুন ২০২১

কালনী ভিউ ডেস্ক::
আগামী রোববার (২০ জুন) দ্বিতীয় পর্যায়ে একসঙ্গে সিলেটের ৬২১২ পরিবারসহ আরও প্রায় ৫৩ হাজার ৩৪০টি অসহায় পরিবারকে ঘর দিচ্ছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ বিষয়ক এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস জানান, আগামী রোববার (২০ জুন) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে দ্বিতীয় পর্যায়ে এসব পরিবারকে মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে বিনামূল্যে দুই শতক জমিসহ সেমি পাকা ঘর দেওয়ার কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

সিলেট বিভাগের ৬ হাজার ২১২ পরিবারের মধ্যে সিলেট জেলায় ১০৯২ পরিবার, সুনামগঞ্জে ৩৯৮০ পরিবার, হবিগঞ্জে ৪৪১ পরিবার এবং মৌলভীবাজারে ৬৯৯ পরিবার ঘর পাচ্ছে। সর্বোচ্চ বরাদ্দ সুনামগঞ্জে

এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি বিভাগের ২ হাজার ৬৬৮ জনকে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ১ হাজার ৪০৬, সুনামগঞ্জে ৪০৭, হবিগঞ্জে ৩১৩ এবং মৌলভীবাজারে ৫৪২ টি পরিবার ছিল।

আরও পড়ুন : ‘স্বপ্নের ঘরে’ উঠছেন সিলেটের আরও ৬২১২ পরিবার

বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) কার্যালয় সিলেট সূত্রে আরও জানা যায়, সিলেট জেলায় ২০ জুন হস্তান্তর হবে ১০৯২টি। এরমধ্যে সিলেট সদরে ১২৫, দক্ষিণ সুরমায় ৪৯, ওসমানীনগরে ১৯৪, বিশ্বনাথে ১৪১, বালাগঞ্জে ১৬০, গোলাপগঞ্জে ১৮৯, বিয়ানীবাজারে ৭৪, জৈন্তাপুরে ১২০, গোয়াইনঘাট উপজেলার ৪০টি পরিবারের মাঝে এসব ঘর হস্তান্তর করা হবে।

অন্যদিকে মৌলভীবাজারে ২০ জুন হস্তান্তর করা হচ্ছে ৬৯৯টি ঘর। এরমধ্যে মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ৩৭টি, রাজনগরে ৪২টি, কুলাউড়ায় ৮৩টি, জুড়িতে ৮০টি, বড়লেখায় ১০৫টি, শ্রীমঙ্গলে ২০০টি, কমলগঞ্জে ১৫২টি পরিবারের মধ্যে ঘর হস্তান্তর করা হবে।

আর হবিগঞ্জ জেলায় ২০ জুন হস্তান্তর হবে ৪৪১ টি ঘর। এরমধ্যে হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় ১০০ টি, শায়েস্তাগঞ্জে ১৫ টি, লাখাইয়ে ২৮ টি, বাহুবলে ৬০ টি, বানিয়াচংয়ে ১২০ টি, নবীগঞ্জে ৪৮ টি, চুনারুঘাটে ৪০ টি এবং আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ৩০ টি পরিবারের মধ্যে এসব ঘর হস্তান্তর করা হবে।

আর সুনামগঞ্জ জেলায় ২০ জুন ৩৯৮০টি পরিবারকে ঘর বুঝিয়ে দেয়া হবে। এরমধ্যে সুনামগঞ্জ সদরে ৪০০টি, দোয়ারাবাজারে ২৬৪টি, বিশ্বম্ভরপুরে ১৯০ টি, ছাতকে ১৭৫টি, জগন্নাথপুরে ৯২টি, ধর্মপাশায় ৩০০টি, জামালগঞ্জে ২৯৭টি, দিরাইয়ে ৪২০টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ২৬১টি, তাহিরপুরে ১৪৬টি এবং শাল্লায় ১৪৩৫টি পরিবারের মধ্যে ঘর হস্তান্তর করা হবে।

আরও পড়ুন : ‘স্বপ্ননীড়ে’ যাচ্ছে সিলেটের ১০ হাজার পরিবার

এদিকে- আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে আরও একলাখ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে বিনামূল্যে জমিসহ ঘর দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব।

মুখ্য সচিব বলেন, অসহায় মানুষকে এভাবে ঘর দেওয়াকে ‘অর্ন্তভূক্তি উন্নয়নে শেখ হাসিনা মডেল’। বিশ্বে এটা নতুন মডেল, আগে কখনো কেউ এটা ভাবেনি। সরকার অসহায় ভূমিহীন-গৃহহীনদের ঘর দেওয়ার পাশাপাশি তাদের কর্মসংস্থানের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা উল্লেখ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প পরিচালক মো. মাহবুব হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মো. আহসান কিবরিয়া সিদ্দিকি।

আপনার মতামত লিখুন :