জামালগঞ্জে সিকন্দর হত্যার মূল আসামী গ্রেফতার

কালনী ভিউকালনী ভিউ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:৪৩ PM, ২৪ মে ২০২১

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার সিকন্দর হত্যায় জড়িত সাচ্না বাজার ইউনিয়নের শুকদেবপুর গ্রামের মৃত জহুর আলীর ছেলে মূল আসামী আমির হোসেন কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে জামালগঞ্জ থানা পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায় বিগত ১১ মে ২০২১ ইং দিবাগত রাতে হরিপুর গ্রামের আঃ রউফ এর ছেলে মোঃ সিকন্দর আলীকে শুকদেবপুর গ্রামের পার্শবর্তী রাস্তার পাশে পতিত জমিতে কে বা কারা খুন করে ফেলে রেখে। পরদিন সকালে থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত সিকন্দরের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেন। ঐ দিনই নিহত সিকন্দরের বড় ছেলে মাহজারুল ইসলাম মারুফ বাদী হয়ে একটি অজ্ঞাতনামা হত্যা মামলা রুজু করেন। দীর্ঘ ১১ দিন পর সিকন্দর আলী হত্যার মূল আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী পুলিশের কাছে স্বীকারুক্তী মূলক জবানবন্দী দিয়েছে এবং ঘটনায় ব্যবহারহিত আলামত হিসাবে ঘটনাস্থলের পার্শে পানির নিজ থেকে খুনে ব্যবহারিত দা‘টি উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার খুনি আমির হোসেনকে বিজ্ঞ আদালতে হাজির করলে সে বিজ্ঞ বিচারকের নিকট খুনের স্বীকারুক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়। এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাইফুল আলম বলেন মাননীয় পুলিশ সুপার সুনামগঞ্জ মোঃ মিজানুর রহমান স্যারের দিক নির্দেশনায় মূল আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে জামালগঞ্জ থানা পুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে খুনের কথা স্বীকার করে এবং তার স্বীকারুক্তিকে ঘটনাস্থল থেকে খুনে ব্যবহারিত দা‘টি ঘটনার স্থলের পার্শবর্তী পানির নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়। আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে সেখানেও স্বীকারুক্তিমূলক জবানব্দী দেয়। তদন্তের স্বার্থে এর বেশি বলা যাবে না। এ ব্যাপারে বাদীর খালা শেফা আক্তার জানান অনেক পরিশ্রম করে জামালগঞ্জ থানা পুলিশ আমার ছোট বোন জামাই সিকন্দর হত্যার মূল আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। এজন্য সিকন্দরের পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপারসহ জামালগঞ্জ থানা পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই। ঘটনার সাথে আরোও কেহ জড়িত থাকলে তাদেরকে ও দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাই। উল্লেখ্য যে সিকন্দর হত্যার পর থেকে প্রকৃত খুনীর সনাক্ত করতে দীর্ঘ সময় পার হওয়ায় এলাকার মানুষ আতঙ্কগ্রস্ত ছিলেন। এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর সংগঠন ও গ্রামবাসীর ব্যানারে কয়েকটি মানববন্ধন করেছেন। প্রকৃত খুনিকে গ্রেফতার করায় এলাকার লোকজন আতঙ্কমূক্ত হয়েছেন এবং জামালগঞ্জ থানা পুলিশকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :