ঈদের দিনেও গাজায় ইসরায়েলের হামলা অব‌্যাহত, নিহত বেড়ে ৬৭

কালনী ভিউকালনী ভিউ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:২১ PM, ১৩ মে ২০২১

কালনী ভিউ ডেস্ক::
মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে। আর ঈদ উৎসবের মধ্যেই গাজায় বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল।আল-জাজিরা জানিয়েছে, ঈদের দিন সকালে পশ্চিম গাজায় একাধিক বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। তবে কোন লক্ষ্যবস্তুতে তারা হামলা চালিয়েছে তা এখনো স্পষ্ট নয়।এখন পর্যন্ত গাজায় ইসরায়েলি বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৬৭ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ১৭ শিশু ও অন্তঃসত্ত্বাসহ আট নারী রয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় চারশ’ ফিলিস্তিনি।গাজা থেকে আল-জাজিরার প্রতিবেদক সাফওয়াত আল-কাহলোত বলেন, গাজার অধিকাংশ বাসিন্দাই ঘুমাতে পারেননি। কিছুক্ষণ পরপর বোমা বিস্ফোরণের শব্দ হচ্ছে এবং বাসাবাড়িগুলো কেঁপে উঠছে।এদিকে অব্যাহত সংঘাতের মধ্যেই জেরুজালেমে মুসলিমদের প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন হাজার হাজার মুসল্লি। তবে গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের কারণে তাদের মাঝে কোনো ঈদ উচ্ছ্বাস ছিল না।অন্যদিকে যুদ্ধবিরতির একাধিক প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে ইসরায়েল। তারা গাজায় হামলা আরও বিস্তৃত করার ঘোষণা দিয়েছে।জবাবে প্রতিরোধ সংগঠন হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাসেম বলেন, ফিলিস্তিনিদের রক্ষার সংগ্রাম অব্যাহত রাখবে হামাস। তিনি ইসরায়েলি লক্ষ্যবস্তুতে আরও ব্যতিক্রমী হামলার ইঙ্গিত দিয়েছেন।গত সোমবার তৃতীয় দিনের মতো মুসলিমদের প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদে ঢুকে মুসল্লিদের ওপর তাণ্ডব চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। অবরুদ্ধ করে রাখা হয় মুসল্লিদের।আল-আকসা মসজিদ থেকে অবরোধ তুলে নেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দিয়ে রকেট হামলার হুমকি দেয় গাজার প্রতিরোধ সংগঠন হামাস। সেখান থেকে বাহিনী সরিয়ে না নিলে ইসরায়েলে রকেট ছোড়ে সংগঠনটি। পাল্টা বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী।ইসরায়েলি উগ্রবাদীদের ‘জেরুজালেম দখল দিবস’ উদ্‌যাপন এবং শেখ জাররাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনি বাসিন্দাদের উচ্ছেদ ঘিরে এ উত্তেজনার সূত্রপাত হয়। এরপর আল-আকসা মসজিদের মুসল্লিদের ওপর কয়েক দফা হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এতে কয়েকশ’ মুসল্লি আহত হন।

আপনার মতামত লিখুন :