বোরো ধানের বাম্পার ফলন : দিরাইয়ে জমে উঠেছে ঈদ বাজার

কালনী ভিউকালনী ভিউ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৪৬ AM, ১২ মে ২০২১

দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
ইসলামধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব, পবিত্র ঈদুলফিতর দুয়ারে। গত বছর হঠাৎ মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাব ছিনিয়ে নেয় ঈদের আনন্দ। লকডাউনে বন্ধ থাকে বিপণিবিতান। অনেকটা সাদামাটা পালিত হয় ঈদ উৎসব। এবার ধানের বাম্পার ফলন এবং ধানের মূল্য বেশি হওয়ায় প্রতিটি পরিবারে “ঈদের পোষাক ” কেনাকাটার ধূম পড়েছে। দিরাই বাজারের অভিজাত সেন মার্কেট, জালাল সিটি, ছাদ উদ্দিন ম্যানশন, বশির প্লাজাসহ প্রতিটি বিপনি-বিতানে নারী পুরুষের উপচে পড়া ভীড়। ঈদের পোষাক কিনতে আশা দুই কলেজ ছাত্রী বলেন, গতবছর রমজানের আগেই লকডাউন শুরু হয় এর প্রভাব পড়ে আমাদের প্রতিটি পরিবারে। করোনা আতংকে আমাদের ঈদের আনন্দ অনেকটা ম্লান হয়ে যায়। এছাড়া গত বছর আমাদের এলাকায় এবারের মতো বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়নি, যার কারনে অধিকাংশ পরিবারে সাদামাটা ঈদ উৎসব পালিত হয়। এবার ধানের বাম্পার ফলন হওয়ায় সবার মাঝে ঈদের আনন্দ বিরাজ করছে। আমরা কয়েকটি দোকান ঘুরে পছন্দের পোষাক কিনব। সেন মার্কেটের তাওহিদ ফ্যাশনের স্বত্বাধিকারী রায়হান মিয়া বলেন, গত বছর মহামারী করোনার কারণে ঈদের আগেই মার্কেট বন্ধ হয়ে যায়, যার কারনে গতবছর কোনো ব্যবসা হয়নি, এবার লকডাউন থাকা সত্বেও স্বাস্থ্য বিধি মেনে মার্কেট খোলা থাকায় এবং আমাদের এক ফসলী বোরো ধানের বাম্পার ফলন হওয়ায় এলাকার ধনী গরীব সবার মাঝে ঈদের আনন্দ বিরাজ করছে। সপ্তাহ খানেক ধরে মার্কেটে নারী পুরুষের উপচে পড়া ভীড়, বেঁচাকেনা খুবই ভালো । সেন মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সভাপতি, দিরাই প্রেসক্লাবের সহসভাপতি জুবের সরদার দিগন্ত বলেন, সপ্তাহ ধরে মার্কেট জমে উঠেছে, মার্কেটে পুরুষের চেয়ে নারীদের উপস্থিতি বেশি। বেঁচাকেনা ও ভালো। ঈদের যে কয়দিন বাকি আছে আমার বিশ্বাস বেঁচা কেনা আরও বাড়বে। এবার বৈশাখী ধানের বাম্পার ফলন আমাদের হাওরাঞ্চলের প্রতিটি ঘরে ঘরে ঈদের আনন্দ অনেকটা বাড়িয়ে দিয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :